Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সাধারণ তথ্য

সমীক্ষা ফিঃ- নিম্নোক্ত হারে সমীক্ষা ফিসহ সদস্য সেবা বিভাগে সংযোগের জন্য আবেদন করতে হয়।

ক্রঃ নং

বিবরন

গ্রাহক সংখ্যা

আবেদন/ সমীক্ষা ফি

০১

আবাসিক/বাণিজ্যিক/দাতব্য প্রতিষ্ঠান/রাস্তার বাতি

০১ হইতে ০৯ জন পর্যন্ত

= ১০০/- টাকা (জন প্রতি)

১০ হইতে ২০ জন পর্যন্ত

=১০০/- টাকা (নির্ধারিত)

২১ হইতে তদুর্ধ

= ২০০০/- টাকা (নির্ধারিত)

০২

গভীর নলকূপ/অগভীর নলকূপ/এলএলপি

প্রতিটি

=২৫০/- টাকা (নির্ধারিত)

০৩

যে কোন ধরনের অস্থায়ী / সাময়িকসংযোগের জন্য

প্রতিটি

=১৫০০/- টাকা

০৪

উপরে বর্নিত সংযোগ ও শিল্প প্রতিষ্ঠান ব্যতীত অন্য কোন সাময়িক/অস্থায়ী সংযোগ জন্য

প্রতিটি

=১৫০০/- টাকা

০৫

পোল স্থানান্তর / লাইন রুট পরিবর্তন সমিতি কর্তৃক স্থাপিত অন্য গ্রাহকের সার্ভিস ড্রপ স্থানান্তরের আবেদনের জন্য

প্রতিটি

=৫০০/- টাকা

০৬

শিল্প প্রতিষ্ঠানের সংযোগের জন্য ( জি. পি)

প্রতিটি

=২৫০০/- টাকা

বৃহত শিল্প প্রতিষ্ঠানের সংযোগের জন্য (এল. পি)

প্রতিটি

=৫০০০/- টাকা

০৭

লোড বৃদ্ধির জন্য

০-১০ ( কিঃ ওঃ) পর্যন্ত

=১০০০/- টাকা

১১-৪৫ ( কিঃ ওঃ) পর্যন্ত

=২০০০/- টাকা

৪৬ থেকে তদুর্ধে ( কিঃ ওঃ)

=৫০০০/- টাকা

 

দাতব্য প্রতিষ্ঠানের সংযোগের নিয়মাবলীঃ-

    বিদ্যুৎ সংযোগের লক্ষ্যে দুই (০২) কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং নির্ধারিত হারে সমীক্ষা ফি সহ নির্ধারিত ফরমে আবেদন করতে হবে। সদস্য সেবা বিভাগ কর্তৃক সম্পাদিত সমীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে সমিতির অনুমোদিত ইলেকট্রিশিয়ান দ্বারা  নিজস্ব খরচে মান সম্পন্ন ওয়্যারিং সম্পাদনের পর লোড অনুযায়ী নিম্নোক্ত হারে জামানত গ্রহণ করা হয়।

 

নিরাপত্তা জামানতঃ-

ক্রঃ নং

লোডের বিবরণ

জামানতের হার (টাকা)

০১

০.৫০ কিঃ ওঃ

৫০০/- টাকা (নির্ধারিত)

০২

০.৫০ কিঃ ওঃ এর উর্ধ্ব হতে ১.০০ কিঃ ওঃ পর্যন্ত

৬০০/- টাকা (নির্ধারিত)

০৩

১.০০ কিঃ ওঃ এর উর্ধ্বে প্রতি কিঃ ওঃ এর জন্য অতিরিক্ত জামানত দিতে হবে।

২০০/-টাকা

       পরবর্তীতে গ্রাহক মিটার স্থাপনের আদেশ এর মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়। সংযোগের জন্য প্রয়োজনীয় সার্ভিস ড্রপ, মিটার ও আনুসঙ্গিক সরঞ্জামাদি সমিতি কর্তৃক বিনামূল্যে সরবরাহ করা হয়।

 

 এক (০১) পোল সম্পসারনের নীতিমালাঃ-

      সমিতির নির্মিত বিতরন লাইন হতে ন্যূনতম ০২ জন গ্রাহকের জন্য বরাদ্দ সাপেক্ষে ০১ পোল সম্প্রসারন করে প্রান্তিক আবেদনকারীদেরকে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদানের বিধান আছে।

 

মহা পরিকল্পনার আওতায় লাইন নির্মাণঃ-

      সমিতির সমগ্র ভৌগলিক এলাকা বিদ্যুতায়নের জন্য অনুমোদিত মহাপরিকল্পনায় প্রতি কিঃ মিঃ ৪৫,০০০/- টাকা বার্ষিক রাজস্ব প্রাপ্তি সাপেক্ষে রাজস্ব অনুপাতের ক্রমানুসারে বাৎসরিক বরাদ্দের ভিত্তিতে অগ্রাধিকার তালিকা অনুযায়ী লাইন নির্মাণের বিধানআছে। নির্মাণের ক্ষেত্রে অধিক রাজস্ব আয় অগ্রাধিকার পায়।

 

ডিপোজিট ওয়ার্কের মাধ্যমে (নিজ খরচে) সংযোগের নিয়মাবলীঃ-

      লাইন নির্মাণের স্বাভাবিক রাজস্ব নীতিমালার ক্রম পর্যন্ত অপেক্ষা না করলে জরুরী ভিত্তিতে এবং কোন লাইন রাজস্ব নীতিমালায় উত্তীর্ন না হলে ন্যূনতম ৫০% রাজস্ব পাওয়া গেলে আবেদনকারী কর্তৃক লাইন নির্মান খরচ জমা প্রদানের মাধ্যমে মাইলেজ বরাদ্দ সাপেক্ষে বিদ্যুৎ সংযোগের বিধান আছে।

সেচ সংযোগের নিয়মাবলীঃ-

     ০১। দুই কপি ছবি সহ নির্ধারিত ফরমে ২৫০.০০ (দুইশত পঞ্চাশ) টাকা সমীক্ষা  ফি জমা দিয়ে আবেদন করতে হবে।

     ০২। লাইন থেকে ১০০ ফুটের অতিরিক্ত হলে অস্থায়ী লাইনের মুল্য গ্রাহক কর্তৃক জমা দিতে হয়। রাজস্ব নীতিমালায় উত্তীর্ন এবং কারিগরী ভাবে       গ্রহণযোগ্য দূরত্ব পর্যন্ত অস্থায়ী লাইন নির্মান করা হয়।

     ০৩। অগভীর নলকুপ/এলএলপি গ্রাহকের মৌসুম পাচঁ মাস এবং গভীর নলকুপ এর জন্য মৌসুম আট মাস ধরা হয়।

 

শিল্প সংযোগের নিয়মাবলীঃ-

      ০১। দুই কপি ছবি সহ নির্ধারিত ফরমে ২৫০০.০০ (এক হাজার পাঁচশত) টাকা সমীক্ষা  ফি জমা দিয়ে আবেদন করতে হয়।

      ০২। সমীক্ষা ও ষ্টেকিং এর পর (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ডিপোজিট ওয়ার্কের (নিজ খরচে) আওতায় লাইন নির্মান ব্যয় জমার পর লাইন নির্মান সম্পন্ন সাপেক্ষে ওয়্যারিং পরিদর্শনের পর নির্ধারিত হারে নিরাপত্তা জামানত গ্রহন করে সংযোগের পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

     ০৩। প্রযোজ্য ক্ষেত্রে পরিবেশ অধিদপ্তর ও স্থানীয় প্রশাসনের ছাড়পত্র গ্রহণ সাপেক্ষে সংযোগ প্রদান করা হয়।

 

এক অবস্থানে সেবা প্রদানঃ-

    সমিতির সদর দপ্তরসহ সকল জোনাল অফিসে এক অবস্থানে সেবা প্রদান করা হয়। এক অবস্থানে সেবা শাখায় একজন কর্মকর্তা /কর্মচারী সার্বক্ষনিক গ্রাহক সদস্যদের অভিযোগ গ্রহণ করে এবং বিভিন্ন বিভাগ থেকে গ্রাহকের সমস্যা সমাধান করে তাৎক্ষনিক ভাবে গ্রাহককে অবহিত করা হয়।

 

গ্রাম বিদ্যুৎ কারিগর তাহাদের কার্যাবলীঃ-

    সমিতির ভৌগোলিক এলাকার বেকার যুবকদের প্রশিক্ষন দিয়ে গ্রাম বিদ্যুৎ কারিগর হিসেবে তৈরী করা হয়। বর্তমানে প্রশিক্ষন প্রাপ্ত বিদ্যুৎ কারিগরের সংখ্যা ১৫০ জন। ঘর ওয়্যারিং এর জন্য গ্রাহককে মানসম্পন্ন মালামাল কিনে দিতে হয়।

 

 ইলেকট্রিক্যাল ওয়্যারিং এর মজুরীঃ-

   প্রতিটি বাড়ী ওয়্যারিং এর জন্য সর্বনিম্ন মজুরী =৩০০.০০ টাকা।

   সেচ পাম্পের সর্বনিম্ন মজুরী একফেজ         = ৫০০.০০ টাকা  ও তিনফেজ    =    ১০০০.০০ টাকা।

   শিল্প প্রতিষ্ঠানের সর্বনিম্ন মজুরী একফেজ     = ৫০০.০০  টাকা ও  তিনফেজ   =    ১০০০.০০ টাকা।

 

গ্রাম উপদেষ্টা তাহাদের ভূমিকাঃ-

    সমিতির প্রতিটি বিদ্যুতায়িত গ্রামে একজন গ্রাম উপদেষ্টা মনোনয়ন দেওয়া হয়। গ্রাম উপদেষ্টাকে সমিতি কর্তৃক প্রশিক্ষন দেওয়া হয়। গ্রাম উপদেষ্টাগন সমিতির নীতি নির্দেশিকার আলোকে গ্রাহক সদস্যদের পরামর্শ প্রদান করে সমিতির কার্যক্রমে সহযোগীতা করে থাকে।

 

সমিতির বার্ষিক সদস্য সভায় আয়োজন করা ঃ-

    গ্রাহক সদস্যই সমিতির মালিক এবং সেবক। সমিতির বিতরণ লাইন ও লাইনে স্থাপিত যন্ত্রপাতি সংরক্ষন করা, বিদ্যুৎ চুরি প্রতিরোধ করা, অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহার সম্পর্কে অফিসকে অবহিত করা, লাইনের পাশে গাছপালা কাটতে সহযোগিতা করা তাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। প্রতি বৎসর সমিতির বার্ষিক সদস্য সভায় গ্রাহক সদস্যদেরকে সমিতির আয়, ব্যয়, সম্পদ ও দায়ের হিসাব অবহিত করা হয়।

 

পাওয়ার ফ্যাক্টর পরিমাপঃ-

    সমিতি কর্তৃক সংযোগকৃত ১০ অশ্বশক্তির ঊর্ধ্বে সকল শ্রেণীর শিল্প এবং সেচ পাম্পের গ্রাহকদের মোটরের পাওয়ার ফ্যাক্টরের মান ০.৯৫ বা তার উপরে থাকা প্রয়োজন। পাওয়ার ফ্যাক্টর এর মান ০.৯৫ এর কম হইলে বিলের সহিত পাওয়ার ফ্যাক্টর মাশুল আরোপ করা হয়। ক্যাপাসিটর ব্যবহারের মাধ্যমে পাওয়ার ফ্যাক্টর উন্নত করা যায়। পাওয়ার ফ্যাক্টর উন্নত হলে গ্রাহক ও সমিতি উভয়ই উপকৃত হয়।

 

সংযোগ বিচ্ছিন্ন পূনঃ সংযোগ ফিঃ-

ক্রঃনং

শ্রেণী

বিবরণ

সংযোগবিচ্ছিন্নকরণফি

পূনঃসংযোগফি

০১

ডি, সিআই

আবাসিক,  দাতব্যপ্রতিষ্ঠান

=১০০.০০টাকা

=৫০.০০টাকা

০২

সি

বাণিজ্যিক  

           =১৫০.০০টাকা

         =৭৫.০০টাকা

০৩

এস,এল

 সড়কবাতি

           =১০০.০০টাকা

         =১০০.০০টাকা

০৪

সেচ

ক) একফেজসংযোগেরক্ষেত্রে

=১০০.০০টাকা

=১০০.০০টাকা

খ) তিনফেজসংযোগেরক্ষেত্রে

=২০০.০০টাক

=২০০.০০টাকা

০৫

জিপি, এলপি

তিনফেজসংযোগেরক্ষেত্রে

ক) একফেজসংযোগেরক্ষেত্রে

            =২০০.০০টাকা

        =২০০.০০টাকা

 খ) ১০কেভিএপর্যন্ত

            =২০০.০০টাকা

         =২০০.০০টাকা

গ) ১১কেভিএ  ৪৫১০কেভিএপর্যন্ত

=৫০০.০০টাকা

=৫০০.০০টাকা

ঘ) ৪৬কেভিএ  ৭৫  কেভিএপর্যন্ত

=৭৫০.০০টাকা

=৭৫০.০০টাকা

ঙ) ৭৬কেভিএ  ১৫০  কেভিএপর্যন্ত

=১০০০.০০টাকা

=১০০০.০০টাকা

চ) ১৫১কেভিএ  এরঊর্দ্ধে

=১৫০০.০০টাকা

=১৫০০.০০টাকা

 

 

মিটার পরীক্ষা ফিঃ-

ক্রঃনং

শ্রেণী

বিবরণ

পরীক্ষাফি

০১

বাড়ী, বাণিজ্যক, দাতব্যপ্রতিষ্ঠান, সড়কবাতি

ক) একফেজসংযোগ

=১০০.০০টাকা

খ) তিনফেজসংযোগ

=২০০.০০টাকা

০২

সেচ

 

ক) একফেজসংযোগ

=২০০.০০টাকা

খ) তিনফেজসংযোগ

=৪০০.০০টাকা

০৩

জি, পি

ক) একফেজসংযোগ

=২০০.০০টাকা

খ) তিনফেজ(ডিমান্ডছাড়া)

=৪০০.০০টাকা

গ) তিনফেজ(ডিমান্ডসহ)

=১০০০.০০টাকা

০৪

এল, পি

বৃহৎশিল্প(ডিমান্ডসহ)

=১০০০.০০টাকা

পার্শ্ব সংযোগ জরিমানাঃ-

পাশ্ব সংযোগের গ্রহন করিয়া যে শ্রেনীর কাজে বিদ্যুৎ ব্যবহার করা হইবে সেই শ্রেনীর জন্য নির্ধারিত হারে জরিমানা আরোপ করা হইবে। এ ক্ষেত্রে জরিমানা  নিম্মরুপ

আবাসিক/দাতব্য প্রতিষ্ঠান পার্শ্ব সংযোগ  গ্রহন করিয়া  বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানাঃ

= ২৫০.০০ টাকা

বাণিজ্যিক  শ্রেনীর গ্রাহক পার্শ্ব সংযোগ  গ্রহন করিয়া  বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানাঃ

= ৫০০.০০ টাকা

 সেচ  শ্রেনীর গ্রাহক পার্শ্ব সংযোগ  গ্রহন করিয়া  বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানাঃ

= ১,৫০০.০০ টাকা

  জিপি/এলপি  শ্রেনীর গ্রাহক পার্শ্ব সংযোগ  গ্রহন করিয়া  বিদ্যুৎ ব্যবহার করিলে প্রতি পার্শ্ব সংযোগের জন্য জরিমানাঃ

= ৩,০০০.০০ টাকা

 

নিরাপদ বিদ্যুৎ ব্যবহারের জন্য কতিপয় সতর্কবানীঃ-

    ০১। ভিজা হাতে বা খালি পায়ে কখনও সুইচে হাত দিবেন না। সকেটের ভিতর কোন তার বা কোন পরিবাহী পদার্থ ঢুকাবেন না।

     ০২। সুইচ অন অবস্থায় কখনও হোল্ডারে বাল্ব লাগানো বা খোলার চেষ্টা করবেন না।

     ০৩। বিদ্যুৎ পরিবাহী তার, খুটি বা টানা তারে কখনও হাত দিবেন না বা খুটিতে গরু ছাগল বাধবেন না, এতে যে কোন সময় বিপদ হতে পারে।

     ০৪। বিদ্যুৎ পরিবাহী তার ছিড়ে পড়ে থাকতে দেখলে কখনও স্পর্শ করবেন না। এ অবস্থায় সমিতিতে বা নিকটস্থ অভিযোগ কেন্দ্রে খবর দিন এবং সমিতির লোক না পৌঁছানো পর্যন্ত পাহারার ব্যবস্থা করুন।

     ০৫। বৈদ্যুতিক তার বা সার্ভিস তারের উপর ভিজা কাপড় শুকানোর জন্য দিবেন না। এতে মারাত্নক বিপদ হতে পারে।

     ০৬। সমিতির সাথে পরামর্শ ব্যতিত আপনার সংযোগের লোড (বাতি, মটর,ফ্যান ইত্যাদি) বৃদ্ধি করবেন না। এতে ট্রান্সফরমার পুড়ে যেতে পারে।

     ০৭। সমিতির বৈদ্যুতিক লাইনের নিছে গাছপালা লাগাবেন না। বৈদ্যুতিক লাইনের আশে পাশে গাছপালা কাটতে সমিতি কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা করুন।